দেশ

মর্মান্তিক ! মায়ের অজান্তে চার দিনের শিশু কন্যাকে হত্যা করল ঠাকুমা এবং বাবা

Bangla 24×7 Desk : করোনা আতঙ্কের কারণে গোটা দেশ জুড়ে চতুর্থ পর্যায়ের লক ডাউন শুরু হয়ে গেছে ইতিমধ্যে। কিন্তু এর মধ্যেও স্বস্তি নেই। এবার ঘটে গেল আরও একটি মর্মান্তিক ঘটনা । এবার ঠাকুমা এবং বাবা মিলে হত্যা করল চার দিনের এক শিশু কন্যাকে। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে মাদুরাইতে। বাংলা ভাষায় একটি প্রবাদ প্রচলিত আছে । ‘কন্যা সন্তান হল ঘরের লক্ষ্মী ‘ । কিন্তু কন্যা ভ্রূণ শিশুকন্যা হত্যার ঘটনা আমাদের দেশে নতুন নয় , বরং তা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে ।

জানা গেছে , মাদুরাইয়ের শোলাভান্ডানে থাকতেন ধাভামনি ও চিত্রা নামের এক দম্পতি । ধাভামনির স্ত্রী চিত্রা কয়েকদিন আগে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন । এটি ছিল তাঁদের চতুর্থ সন্তান । কিন্তু এই কন্যা সন্তানকে মানতে পারেনি ধাভামনি ও তাঁর মা । তাঁরা কন্যাটিকে হত্যার ছক করেন । এরপর তাঁরা রটিয়ে দেয় যে , শিশুটি অজানা অসুখে মারা গেছে । সন্দেহ দানা বাঁধে প্রতিবেশীদের মনে। তাঁরা খবর দেন গ্রামের স্থানীয় প্রশাসককে। মাদুরাই থানাতে খবর দেওয়া হলে পুলিশ এসে তদন্ত শুরু করে। তদন্তেই জানা যায় শিশু কন্যাটিকে হত্যা করা হয়েছে ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে , জেরার মুখে সব কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত ধাভামনি । কন্যাসন্তান নিয়ে তার পরিবারের আপত্তি ছিল শুরু থেকেই। তাই শিশুটি জন্মানোর পরেই তারা হত্যার পরিকল্পনা করে। শিশুটির মা অর্থাৎ ধাভামনির স্ত্রী চিত্রা যখন অন্য কাজে ব্যস্ত তখন তাঁর অজান্তে তারা বাচ্চাটিকে বিষাক্ত একটি ভেষজ খাইয়ে দেয়। বিষ খাওয়ানোর পরে পরেই তারা গ্রামের স্থানীয় নার্সকে খবর দেয়। কিন্তু ততক্ষণে বিষের জ্বালায় নীল হয়ে গেছে একরত্তি ছোট্ট শরীরটা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য , গত মার্চ মাসে মাদুরাই জেলাতেই অপরাধের ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছিল। এক মাসের এক শিশু কন্যাকে তার নিজের বাবা মা হত্যা করেছিল। এছাড়াও মাদুরাইয়ের সেদাপট্টি থেকেও শিশুকন্যা হত্যার একটি ঘটনা জানা গেছে। এক সপ্তাহের এক শিশুকে তার বাবা ও মা হত্যা করে তাদের বাড়ির উঠোনে পুঁতে দিয়েছিল। শিশুটি ছিল এই দম্পতির তৃতীয় কন্যা। এমনই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছিল ।

Follow Me:

Related Posts