মহানগর রাজনীতি রাজ্য

‘ তাঁরা কোনও দায়িত্বশীল রাজনীতিবিদ নন ‘, বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে দুই বিজেপি নেতাকে খোঁচা দিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

Bangla 24×7 Desk : করোনা ভাইরাসের দাপটে বিপর্যস্ত রাজ্য । প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে । সাথে পাল্লা দিচ্ছে মৃত্যু মিছিলও । এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের রাজনৈতিক দলের নেতাদের বক্তৃতার ঝড় কিন্তু থামছে না । বেশ কয়েকদিন ধরে রাজ্য রাজনীতিতে আলোচনার আলোয় চলে এসেছেন দুই বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু ও দিলীপ ঘোষ । তাঁরা আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছেন কোন কাজের জন্য নয় , অবশ্যই বিতর্ক সৃষ্টির কারণে ।

এই প্রসঙ্গে নাম না করে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক তাঁদের সমালোচনা করলেন । তিনি বলেন , ” যারা এমন করেছেন তাঁদের নিশ্চয়ই শিক্ষাগত যোগ্যতার অভাব রয়েছে ” । তবে বাংলায় এসব চলবে না । প্রসঙ্গত উল্লেখ্য , দলীয় কর্মীর মৃত্যুতে দুই বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু ও দিলীপ ঘোষ দেখে নেওয়ার পাশাপাশি থানা জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন । দাঁতনে অবৈধ জমায়েতের জন্য ইতিমধ্যেই কোতয়ালি থানায় দুই বিজেপি নেতা সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করা হয়েছে। 

রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আরও বলেন , ” যারা এমন করেছেন তাঁরা কোনও দায়িত্বশীল রাজনীতিবিদ নন । তাঁদের দিল্লির এইমস হাসপাতালে চিকিৎসার প্রয়োজন ” । রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙায় তৃণমূলের দলীয় কর্মসূচি ছিল । গোবরডাঙা , গাইঘাটা সহ বেশ কিছু জায়গা থেকে বেশ কিছু মানুষ তৃণমূলে যোগদান করেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বনগাঁ দক্ষিণের বিধায়ক সুরজিৎ বিশ্বাস , গাইঘাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোবিন্দ দাস সহ অন্যান্য নেতারা। দলবদলকারীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক । 

অনুষ্ঠান শেষে মন্ত্রী জানান , ” কাউকে জোর করে নয় , সবাই নিজের ইচ্ছায় মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নএ সামিল হয়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন ” । এদিন বিজেপির কয়েকজন নেতা সহ মোট সাড়ে তিনশো কর্মী সমর্থক তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বলে জানান খাদ্যমন্ত্রী ।

Follow Me:

Related Posts