রাজ্য

‘রবীন্দ্রনাথ বহিরাগত’ মন্তব্য নিয়ে ক্ষমা চাইলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য

Bangla 24×7 Desk : শান্তিনিকেতনে পৌষ মেলার মাঠে পাঁচিল তোলা এবং তা ভেঙে ফেলার ঘটনা নিয়ে গত মাসে তোলপাড় কাণ্ড বেঁধে গিয়েছিল বিশ্বভারতীতে। ময়দানে নেমে পড়েছিলেন আবাসিক , ছাত্র-ছাত্রী সহ মুখ্যমন্ত্রী সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল । বিবৃতি, পাল্টা বিবৃতি চলতে থাকে ।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন , ” বহিরাগত লোকজন এনে পাঁচিল দেওয়া হচ্ছে । এর ফলে রবীন্দ্র ভাবাবেগে ও রবীন্দ্রনাথের মুক্ত শিক্ষা ভাবনা আঘাতপ্রাপ্ত হচ্ছে। ” মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পরে বিশ্বভারতীর উপাচার্য বলেন , ” রবীন্দ্রনাথ বিশ্বভারতীতে বহিরাগত ছিলেন ” । এরপরে শুরু হয় যাবতীয় কাণ্ড । ১৯২১ সালে রবীন্দ্রনাথ বিশ্বভারতী গড়ে তুলেছিলেন। ১৯৫১ সালে তাকে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের তকমা দেওয়া হয়।

বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর মন্তব্য নিয়ে অতীতেও বহুবার জলঘোলা হয়েছে। সমালোচনার ঝড় বয়ে গেলেও তিনি বিশেষ আমল দেননি। কিন্ত এবার সেই তিনি বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী ক্ষমা চাইলেন। ‘রবীন্দ্রনাথ বহিরাগত’ মন্তব্য নিয়ে শুক্রবার ক্ষমা চেয়েছেন বিদ্যুৎবাবু। তিনি জানিয়েছেন , ” আমর বক্তব্যের ভুল ব্যখ্যা করা হয়েছে । আমার বক্তব্যের জন্য কেউ যদি আঘাতপ্রাপ্ত হয় তাহলে আমি ক্ষমাপ্রার্থী ” ।

Follow Me:

Related Posts