বিদেশ

রহস্যের জালে আবৃত উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের ব্যক্তিত্ব

Bangla 24×7 Desk : উত্তর কোরিয়ার প্রতিষ্ঠাতা কিম উল সুং ছিলেন বর্তমান শাসক কিম জং উনের দাদু । তাঁর জন্মদিন উত্তর কোরিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন হিসাবে পালন করা হয় ।

১. জানা যায় , কিম জং উন নাকি উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসের এক কর্মীর চালকের ছেলের পরিচয় দিয়ে অর্থাৎ নিজের আসল পরিচয় গোপন করে দীর্ঘদিন সুইজারল্যান্ডে পড়াশোনা করেছেন।

২. কিম জং উন তাঁর বাবার মৃত্যুর পর ২০১১ সালে দেশের সাসন ব্যবস্থার ভার নিজের হাতে তুলে নেন । যদিও দেশের ব্যপারে তিনি তাঁর বাবা ও দাদার মতোই জ্ঞানহীন ছিলেন । তিনি নিজেকে স্বৈরাচারি শাসক হিসাবেই দেশের কাছে বর্ণনা করেন ।

৩. জানা যায় যে , তিনি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রেও যুক্ত ছিলেন । তাঁর বাবার আমলে কিম সাতজন জেনারেলকে ও তিন জন মন্ত্রীকেও বহিস্কার করেন । এমনকি হত্যা করার মতো অভিযোগও রয়েছে কিমের বিরুদ্ধে ।

৪.ক্ষমতার দম্ভে কিম সর্বদাই সবার উপরে । শোনা যায় যে , ক্ষমতার অহঙ্কারে কিম তাঁর বান্ধবী ও ঘনিষ্ঠ নেতাকেও হত্যা করেছিলেন ।

৫. উত্তর কোরিয়ার বিভিন্ন সরকারি মাধ্যম গুলি কিম জং উনকে সর্বদাই ভগবানের আসনে রেখে দিয়েছে । গোটা বিশ্বের সামনে তাঁকে সবসময় একজন আদর্শ নেতা ও সফলতার জনক হিসাবে গন্য করেন তাঁরা ।

৬. সামরিক ও প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত যে কোন বিষয় কিম জং উন একজন অগ্রগণ্য ব্যক্তি । তিনি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা , পারমানবিক পরীক্ষা এইসব বিষয় চর্চা করতে পছন্দ করে থাকেন ।

৭. বেশ কিছুদিন অন্তরালে থাকার পর অবশেষে জনসমক্ষে উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন । বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের অসুস্থতা ও মৃত্যুর খবর নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছিল। কিন্তু সেই সব জল্পনাকে মিথ্য প্রমান করে প্রায় ২০ দিন পরে জনসমক্ষে এলেন উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন ।

Follow Me:

Related Posts