অফবিট বিদেশ

” মৃত্যুদূত দাঁড়িয়েছে দ্বারে “, অতীতের মোড় ঘুরে ‘ করোনার ‘ মধ্যেই ‘ ইবোলা ‘

Bangla 24×7 Newsdesk : “এর থেকে একেবারেই তুলে নিক, এই বয়সে এসে আর কত সইব ” চোখ মুছতে মুছতে এমনই প্রার্থনা ৮০ বছরের কোটার কমলা বালা দাসীর। খুব ছোটবেলায় বিয়ে করে চলে এসেছিলেন সুন্দরবনের সবুজ ছেড়ে কলকাতার গলিতে। স্বামী ফুটপাতের ধারে চা বিক্রি করতেন । সংসার চলে যায় কোনও মতে। লকডাউনে একটু চিন্তার ভাঁজ পড়লেও এখন আবার নিত্য ছন্দে। তাহলে তাঁর আক্ষেপ কি নিয়ে !

জীবনে অনেক মানুষ কে হারিয়েছেন তিনি। স্বামী গত হয়েছেন অনেক আগে। দুই ছেলে বউ , নাতি নাতনি নিয়ে ভরা সংসার। সুন্দরবনে থাকায় মহামারির আঁচ কোনোদিনই পাননি তিনি। অভাব কি সেটাও জানা নেই। তবে এই বয়সে এসে পাশের বাড়ির রমেশ, কিছু দূরের কমলেশকে যে এই ভাবে হারাবেন ভাবতে পারেননি। তাঁর দোকানেই চা খেতে আসত তারা।

তবে শহর কলকাতা বা ভারতের কোন রাজ্য নয়। ইবোলার আক্রমণ কৃষ্ণাঙ্গদের দেশ আফ্রিকায়। আফ্রিকার ইবোলা নদীর থেকে এই ভাইরাসের নাম। তবে এই মারণ ভাইরাসের জন্য নদীটি একেবারেই দায়ী নয়। দায়ী এক রাক্ষুসে উড়ন্ত প্রাণী। ইবোলা ভাইরাসের প্রধান বাহক টেরোপডিডাই প্রজাতির ফলাহারি বাদুড়। লাইবেরিয়া , সিয়েরা লিওনের মতো দেশ গুলিতে এই ভাইরাস মারণ রুপ ধারণ করে। ১৯৭৫ সালে আফ্রিকার কঙ্গোয় প্রথম ইবোলা ভাইরাস ধরা পড়ে । ৯০ শতাংশ ক্ষেত্রেই ইবোলা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে রোগীর মৃত্যু হয়। ইবোলা ভাইরাস বাসা বাঁধে শিম্পাঞ্জি , গোরিলা , সজারুর মতো প্রাণীর শরীরে। হাঁচি , কাশি তো বটেই এই রোগ ছড়িয়ে পড়তে পারে লালারস ,ঘাম বা যৌন সঙ্গমের ফলেও।

‘আরভিএসভি ঝেবোভ’ হল এই মারণ ভাইরাসের টিকা যেটি আবিষ্কৃত হয় ২০১৭ সালে। এই বছরের জুন থেকে ইবোলার বাড়বাড়ন্ত নতুন করে ভাবাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে। তবে আপনার বা আমার কি তাতে ! আমরা তো এমনিতেই রোগগ্রস্ত। গল্পের ঠাকুমা দেখেছে দীর্ঘ ৮০ বছরের সূর্যদয়। আর আমরা এটাও জানি না কালকের সূর্য আদৌ দেখব কিনা।

Follow Me:

Related Posts