দেশ

জন সমাগম ছাড়াই পুরীতে রথযাত্রার আয়োজনের অনুমতি দিক আদালত , শীর্ষ আদালতে আবেদন কেন্দ্রীয় সরকারের

Bangla 24×7 Desk : করোনার আবহে কার্যত বিপর্যস্ত গোটা দেশ । সংক্রমণ এড়াতে বারবার প্রশাসনের তরফে জনসমাগম করতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে । করোনা অতি মহামারীর মধ্যে পুরীতে যাতে রথযাত্রা না হয় , সেজন্য একটি পিটিশন জমা পড়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। রথযাত্রা স্থগিত করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে ওড়িশা বিকাশ পরিষদ নামে এক সংগঠন পিটিশন দাখিল করেছিল । পিটিশনে বলা হয়েছিল , এবার রথযাত্রা হলে লক্ষ লক্ষ মানুষ সংক্রমিত হবেন। কারণ প্রায় ১০/১২ দিন ধরে চলা পুরীর রথযাত্রা উৎসবে প্রায় ১০ লক্ষ মানুষের সমাগম হয় । এই পরিস্থিতিতে যা অত্যন্ত বিপদজ্জনক । ইতিমধ্যেই পুরীর রথযাত্রা প্রসঙ্গে রায়দান করেছেন সুপ্রিম কোর্ট ।

কিন্তু শীর্ষ আদালতের এই রায় মনঃপুত হয়নি পুরীর রাজা গজপতি দিব্য সিংহ দেবের । তিনি কোনভাবেই চান না যে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রায় এতটুকু খামতি থাকুক । তাই তিনি উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েককে চিঠি লিখে বলেন , ” পুরীতে রথযাত্রায় অনুমতি পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করুন । কোন পরিস্থিতিতেই পুরীর রথযাত্রা বন্ধ রাখা সম্ভব নয় , দেশ , বিদেশের বহু মানুষ ইলেকট্রনিক্স ও ডিজিটাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই উৎসব দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন । উৎসব বন্ধ মানে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়া ,যেটা কখনই কাম্য নয় ” ।

কেন্দ্রীয় সরকার শীর্ষ আদালতকে জানিয়েছে যে জন সমাগম ছাড়াই পুরীতে রথযাত্রার আয়োজনের অনুমতি দিক আদালত । এই আর্জি জানিয়েছে কেন্দ্র । কেন্দ্রের এই আবেদনকে সমর্থন জানিয়েছে ওড়িশা সরকারও। বিচারক অরুণ মিশ্রর নেতৃত্বাধীন শীর্ষ আদালতের তিন বিচারকের বেঞ্চের সামনে কেন্দ্রের পক্ষে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন , ” রথযাত্রার সাথে কোটি কোটি মানুষের আবেগ জড়িয়ে আছে । ধর্মীয় মতে একবার জগন্নাথ দেবের আবির্ভাব না ঘটে তাহলে আগামী ১২ বছর তিনি বেরোতে পারবেন না। সমস্ত সেবাইত ও পাণ্ডাদের করোনা পরীক্ষা করা হবে । নেগেটিভ হলে তাঁদের অনুমতি দেওয়া হবে । পূজার আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া যেতে পারে পুরীর রাজা এবং মন্দির কমিটিকে। ভক্তদের টিভির পর্দায় চোখ রেখেই জগন্নাথদেবের আশীর্বাদ গ্রহণ করতে হবে।  ”

Follow Me:

Related Posts