রাজ্য

রাজ্য সরকারের নির্দেশে রবীন্দ্র জয়ন্তী উৎসব পালিত হল চাঁচল ও হরিশ্চন্দ্রপুর থানা প্রাঙ্গণে

তনুজ জৈন , মালদহ : অন্য বছর সকাল থেকে মানুষের ঢল নামে এই দিনটিতে। বিশ্বকবির জন্মদিনে কবিকে প্রনাম, শ্রদ্ধা জানাতে রবীন্দ্রভবন, স্কুলগুলি নানা অনুষ্ঠানে আনন্দ মুখরিত হয়ে ওঠে। এবার পরিস্থিতি পুরোপুরি ভিন্ন। লকডাউনের বেড়াজালে বন্দি মানুষ। কিন্তু তা বলে বিশ্বকবি , সকলের প্রাণের কবির জন্মদিন পালিত হবে না তা কি হয় ? চাঁচল থানার উদ্যোগে পালিত হল রবীন্দ্রজয়ন্তী উৎসব। শুক্রবার কবিগুরুর জন্ম জয়ন্তীতে চাঁচল থানা থেকে সুদৃশ্য ট্যাবলো বের হয় ।

লকডাউনের সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে শহরে ৫ কিলোমিটার এলাকা প্রদক্ষিণ করে ট্যাবলো। নেতৃত্বে ছিলেন চাঁচলের এসডিপিও সজলকান্তি বিশ্বাস, চাঁচল থানার আইসি সুকুমার ঘোষ সহ থানার সমস্ত পুলিশকর্মী, সিভিক ভলান্টিয়ার কর্মীরা। শহরঘুরে ট্যাবলো নিয়ে কবিগুরুকে শ্রদ্ধার পাশাপাশি কোভিড-১৯ নিয়ে বাসিন্দাদের সচেতনও করে পুলিশ। মাস্ক না পড়ে বাইরে বের না হওয়া, অকারণে বাইরে না বের হওয়ার জন্য বাসিন্দাদের সচেতন করা হয়।

লকডাউন এর জেরে দীর্ঘদিন ধরে রোজগার হীন অবস্থায় রয়েছে চাচলে ট্যাক্সি ইউনিয়ন রবীন্দ্রজয়ন্তী উপলক্ষে এদিন চাচল থানার প্রশাসনের তরফ থেকে ট্যাক্সি ইউনিয়নের চালকদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয় এদিন |

অন্যদিকে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার উদ্যোগে শুক্রবার রবীন্দ্র জয়ন্তী উৎসব পালিত হল থানা প্রাঙ্গণে | এই প্রসঙ্গে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান রাজ্য সরকারের নির্দেশেই রবীন্দ্র জয়ন্তী উৎসব পালিত হয়েছে প্রত্যেক থানায় একই ভাবে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় পালিত হয় রবীন্দ্র জয়ন্তী উৎসব | তিনি জানান করোনা যুদ্ধকে আমাদের একসাথে সবাইকে লড়াই করতে হবে, তাই জন্য সকলকে বাড়িতে থাকতে হবে |

Follow Me:

Related Posts