করোনা আপডেট মহানগর রাজ্য

কলকাতা পৌরসভার উদ্যোগে প্রতিটি পাড়ায় চালু হতে চলেছে ‘মোবাইল ল্যাব’ ! ‘ডোর স্টেপে’ করোনা পরীক্ষা

সমর্পিতা ব্যানার্জী , কলকাতা : এবার খোদ কলকাতা পৌরসভার উদ্যোগে চালু হতে চলেছে পাড়ায় পাড়ায় ‘মোবাইল ল্যাব’ । জানা যাচ্ছে যে কনটেন্টমেন্ট জোনের হটস্পটে এই সুবিধা গুলো পাবে সাধারণ মানুষ । করোনা আক্রান্ত সন্দেহভাজনের লালারস সংগ্রহ করবে তারা । ছয়টি চলমান ল্যাব তৈরির করা হয়েছে। এবং যাঁরা লালারস সংগ্রহ করবেন সেই টেকনিশিয়ানদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেবার কাজ শুরু হয়েছে।

কোভিড-১৯ পরীক্ষা একেবারে ‘ডোর স্টেপ’ নিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম । তিনি বলেন যে ,“আগেই প্রচারের পর নির্দিষ্ট দিনে মোবাইল ল্যাবটি পাড়ায় গিয়ে থামবে। পুরস্বাস্থ্য দপ্তরের তালিকাভুক্তরা নিখরচায় লালারস দিয়ে যাবেন। পরীক্ষা হবে পিজিতে। পরীক্ষার রিপোর্ট পাড়ায় পুরসভা পৌঁছে দেবে। অসুস্থের চিকিৎসার ব্যবস্থা করবে পুরসভা। টার্গেট একটাই, যত বেশি সংখ্যক মানুষের করোনা পরীক্ষা , তত শনাক্ত হলে ব্যবস্থা।” মোবাইল ল্যাবে দৈনিক ৪০০ থেকে ৫০০ জনের পরীক্ষা করবে বলে পুরমন্ত্রী জানান ।

ফিরহাদ হাকিম আরও বলেন যে , “বেলগাছিয়া , রাজাবাজার এলাকায় প্রথম সংক্রমণ ছড়িয়েছিল ওলা ও উবের চালকদের হাত ধরে। এরা বিমানবন্দর থেকে বিদেশ ফেরত যাত্রীদের গাড়িতে নিয়ে শহরের বিভিন্ন অংশে পৌঁছে দিয়েছেন। সেই বিদেশিদের শরীর থেকে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন চালকরা। তাঁরাই বেলগাছিয়া ও রাজাবাজারের মতো ঘিঞ্জি বস্তিতে ছড়িয়েছেন। ঐ দুই এলাকায় সংক্রমণ পুরসভা নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

কিন্তু এখন বড়বাজার ও পোস্তায় প্রতিদিন নতুন রোগীর সন্ধান মিলছে। ভিন রাজ্যের লরির চালক ও খালাসিরাই এই ভাইরাস নিয়ে আসছেন। চালকরা অনেকেই উপসর্গহীন হওয়ায় কুলি, মজুর ও ব্যবসায়ীরা বুঝতে পারছেন না। তাই শহরের ওই এলাকায় এখন প্রচুর নতুন করোনা রোগী পাওয়া যাচ্ছে।” এখন শুধু দেখবার বিষয় যে কত দিনের মধ্যে এই পরীক্ষার প্রক্রিয়া শুরু হয় , তাহলেই রোগীর রোগ ধরা পরবে আর করোনা মোকাবিলা করতে প্রশাসন সক্ষম হবে ।

Follow Me:

Related Posts