মহানগর

তিস্তাপারের বৃত্তান্তের সৃষ্টিকর্তা সাহিত্যিক দেবেশ রায় চিরকালের জন্য চলে গেলেন

সমর্পিতা ব্যানার্জী,কলকাতাঃ চিরকালের জন্য চলে গেলেন তিস্তাপারের বৃত্তান্তের সৃষ্টিকর্তা। বিশিষ্ট সাহিত্যিক দেবেশ রায় আর নেই। মৃত্যু কালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।
শ্বাস জনিত সমস্যা নিয়ে তেঘরিয়ার এক নার্সিংহোমে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল সঙ্গে ছিল সোডিয়াম, পটাসিয়ামের সমস্যার জন্য।মঙ্গলবার ভর্তি করা হলে সে দিনই ভেন্টিলেশনে চলে যান বাংলা সাহিত্যের কিংবদন্তি লেখক। গতকাল রাত 11টা নাগাদ প্রয়াত হলেন তিনি। লকডাউনের মাঝে তাঁর অসংখ্য ভক্তরা শেষ দেখা দেখতেও পারলো না ।

কালজয়ী উপন্যাস থেকে শুরু করে , ছোট গল্প এবং প্রবন্ধ সব দিয়ে গেল সাহিত্য জগৎ কে..
১৯৯০ সালে তিস্তাপারের বৃত্তান্তের জন্য সাহিত্য আকাদেমি পুরস্কার পান তিনি। তিনি বড়ো ঔপন্যাসিক, প্রবন্ধকার, গল্পকার ও ছিলেন। তাঁর প্রথম উপন্যাসের নাম যযাতি। যা সাহিত্যে জগতে চিরকাল বেঁচে থাকবে পাঠকের হৃদয়ে.তাঁর অসংখ্য উপন্যাস—বরিশালের যোগেন মণ্ডল, মানুষ খুন করে কেন মফস্বলী বৃত্তান্ত, সময় অসময়ের বৃত্তান্ত, লগন গান্ধার, আত্মীয় বৃত্তান্ত।
.. ১৯৭৯ সাল থেকে এক দশক তিনি সম্পাদনা করেছেন ‘পরিচয়’ পত্রিকা। অনেক লেখক তৈরি করেছেন সে সময়।বাংলাদেশের ১৯৩৬ সালে পাবনাতে তাঁর জন্ম..তিনি যেমন ভালো লেখালেখি করতেন তার পাশাপাশি তিনি ভালো রাজনীতিবিদ ও ছিলেন।
দেবেশ রায়ের প্রয়াণে বাংলা সাহিত্য জগতের যে ক্ষতি হলো সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না ।

Follow Me:

Related Posts