অফবিট টেলি দুনিয়া বিনোদন

প্রত্যাবর্তনেও জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌরাণিক ধারাবাহিক ‘রামায়ণ’

সমর্পিতা বন্দোপাধ্যায় , কলকাতা : ডাউন এর ফলে বন্ধ সিনেমা সিরিয়ালের শুটিং । তাই আপাতত বন্ধ সব সিরিয়াল । দর্শকদের দেখতে হচ্ছে পুরোনো টেলিকাস্ট । কিন্তু লকডাউন উপেক্ষা করে অনেকেই বাড়ির বাইরে বের হচ্ছেন । আর সেই জন্যই কেন্দ্র সরকার সিদ্ধান্ত নেন যে রামানন্দ সাগরের পরিচালিত রামায়ণ দেখানো হবে টেলিভিশন পর্দায় । যাতে মানুষ বাড়ির বাইরে না যায় ।

প্রত্যাবর্তনেও রেকর্ড রামানন্দ সাগরের ‘রামায়ণ’ ধারাবাহিকের। দর্শক সংখ্যার বিচারে সারা বিশ্বেরই যাবতীয় নজির ভেঙেচুরে দিল এই পৌরাণিক ধারাবাহিক। সারা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি দর্শক যে বিনোদনমূলক ধারাবাহিক দেখেছেন , তা হল দূরদর্শনের পর্দায় পুণঃসম্প্রচারিত এই ‘রামায়ণ’। প্রথম দিনে এই সিরিয়ালের দর্শক সংখ্যা ছিল ৭.৭ কোটি। ভারতের অন্যতম বিখ্যাত টিভি অনুষ্ঠান রামায়ণ প্রথমবার সম্প্রচারিত হয়েছিল ১৯৮৭ সালে । আর এখন ২০২০ তে সবচেয়ে বেশিবার দেখা হয়েছে এই শো। সারা বিশ্বের ক্ষেত্রেই যা একটা রেকর্ড। ট্যুইটারে দূরদর্শনের ঘোষণা অনুযায়ী, প্রমাণ করে এই টেলি সিরিয়ালের জনপ্রিয়তা কতটা।

৩৩ বছর পর ছোটপর্দায় ফিরে এভাবেই দাপট দেখাচ্ছে রামায়ণ। গত ২৮ মার্চ থেকে এই সিরিয়াল পুণঃসম্প্রচারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। আর এই সিরিয়াল এত বেশি দর্শক দেখছেন যে, ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিলের তথ্য অনুযায়ী , দূরদর্শনও হয়ে উঠেছে সবচেয়ে বেশি দেখা চ্যানেল। এই সিরিয়াল প্রথমবার দূরদর্শনের পর্দায় এসেছিল ১৯৮৭ সালের জানুয়ারিতে এবং চলেছিল ১৯৮৮ সালের ৩১ জুলাই পর্যন্ত। তখন প্রতি রবিবার সকাল সাড়ে নয়টা থেকে সম্প্রচারিত হত। এখন অবশ্য প্রত্যেকদিন দু’বার করে সম্প্রচারিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য , ৮০-র দশকের শেষদিকে সম্প্রচারের সময় এই সিরিয়ালের দর্শক সংখ্যা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ছিল বলে দাবি। আর সেই সময় খুব বেশি লোকের বাড়িতে টিভি সেট ছিল না । প্রতিবেশীদের বাড়িতে গিয়েই দেখতেন তাঁরা।

তবে এখনো নতুন প্রজন্মের বাচ্ছাদের কাছে এই রামায়ণ দেখা ছিল অনেকদিনের বাবা মায়ের মুখে শোনা অনেকদিনের অপূর্ণ সেই ইচ্ছা আর সেই ইচ্ছা পূরণ হলো আবার সাথে পুরোনো স্মৃতিগুলো বাড়ির অভিভাবকদের উস্কে দিয়ে গেল ।

Follow Me:

Related Posts