দেশ

আন্তর্জাতিক নার্স ডে! জেনে নিন এই দিনের গুরুত্ব

সমর্পিতা ব্যানার্জী, কলকাতাঃ আজ আন্তর্জাতিক নার্স দিবস। এই করোনা মোকাবিলায় চিকিৎসকদের পাশাপাশি তাদের অবদান অনস্বীকার্য..
১৯৬৫ সালের ১২ মার্চ প্রথম পালন করা হয় এই দিনটি.বলাবাহুল্য যে ইন্টারন্যাশনাল কাউন্সিল অফ নার্সেস পক্ষ থেকেই পালন করা হয় এই আন্তর্জাতিক নার্স দিবস। তারপর থেকে প্রতি বছর ১২ মে পালিত হয়ে আসছে দিনটি।

সেবিকাদের সম্মান জানাতেই আজকের এই দিন। অর্থাৎ আজকের দিন। সমাজের প্রতি নার্সদের অবদান। তা সকলের সামনে তুলে ধরতে এই দিনটি পালন করে বিশ্ব। তবে এই দিনটির আর একটি বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে যার জন্য আরো বেশি করেই আজকের তারিখ টিকে বেঁচে নেওয়া হয়েছিল। কারণ টি হলো আজি সেই দিন ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেলের জন্মদিন।মানে আধুনিক নার্সিংয়ের জননী তাঁর আজ জন্মদিন। তাই এই দিনটি পালন করা হয় আন্তর্জাতিক নার্স দিবস হিসেবে। গোটা বিশ্বে পালন করা হয়, এই দিনটি.ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনে এদিন যেমন মোমবাতি জ্বালানো হয়। আমেরিকায় একটি দিন নয়, নার্সদের উদ্দেশে নিবেদিত হয় একটা গোটা সপ্তাহ।

১৮২০ সালের এই দিন ইংল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করেন তিনি । ক্রিমিয়ার যুদ্ধের সময় তিনি ছিলেন প্রধান সেবিকা । ইংরেজ-তুর্কি নির্বিশেষে দু’দেশের আহত মুমূর্ষু সৈন্যদেরই দিনরাত ধরে প্রাণ ঢেলে সেবা করেন তিনি। গভীর রাতে হাসপাতালের করিডোরে রোগীদের প্রয়োজন দেখতে হাতে মোমবাতি নিয়ে তিনি হেঁটে বেড়াতেন। সব মানুষের সুবিধা অসুবিধা গুলো ভালো করে দেখে তার সমাধান করার চেষ্টা করতেন..
১৮৬০ সালে লন্ডনে প্রথম বিশ্বের বিজ্ঞানসম্মতভাবে তৈরি হয় নার্সিং শেখানোর স্কুল নাইটিঙ্গেল স্কুল অফ নার্সিং। এই স্কুল নির্মাণেও তাঁর অবদান ছিল।লেডি উইথ ল্যাম্প বলে খ্যাত ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল স্মরণে রেখেছেন লেডি উইথ ল্যাম্প-কে। তার পুরো জীবনটাই আমাদের কাছে এক আদর্শ..
তিনি যেভাবে রোগীদের সেবার কাজে নিজেকে নিবেদিত করেছিলেন সত্যি সেটা আমাদের কাছে একটি দৃষ্টান্ত..

Follow Me:

Related Posts