দেশ

কোভিফোর ব্র্যান্ডের নামেই ২০ হাজার ফাইল রেমেডিসিভির পাঠানো হল পাঁচ রাজ্যে , উদ্যেগী হায়দরাবাদের সংস্থা হেটেরো

Bangla 24×7 Desk : কোভিফোর ব্র্যান্ড নেমেই রেমেডিসিভির ওষুধ পাঠানো হল পাঁচ রাজ্যে। করোনা সংক্রমণে সবচেয়ে বিধ্বস্ত মহারাষ্ট্র এবং দিল্লি রয়েছে সেই রাজ্যগুলির মধ্যে। বাকি তিন রাজ্য হল গুজরাত, তামিলনাড়ু ও তেলেঙ্গানা। আগামী দুুই তিন সপ্তাহের মধ্যে এক লাখ ওষুধ তৈরি হবে । এমনটাই ঠিক করেছে এই হেটেরো সংস্থা। পরের দফায় ওষুধ পাঠানো হবে কলকাতা , ইনদোর , ভোপাল , লখনউ , পাটনা , ভুবনেশ্বর , রাঁচি , বিজয়ওয়াড়া , কোচি , ত্রিবান্দ্রম ও গোয়ায়।

এই ওষুধের প্রস্তুতকারক মার্কিন সংস্থা গিলিয়েড সায়েন্সেসের সঙ্গে ভারতের সিপলা , হেটেরো ল্যাব ও জুবিল্যান্ট লাইফ সায়েন্সের চুক্তি হয়। এর পর সিপলা এর জেনেরিক ভার্সন সিপ্রেমি তৈরি করে। হেটেরো ল্যাব বানায় কোভিফোর। হেটেরো গ্রুপের চেয়ারম্যান ডক্টর পার্থ সারথি রেড্ডি জানিয়েছেন , ” ড্রাগ কন্ট্রোলের অনুমোদনের পরে এই ওষুধের সেফটি ট্রায়াল করা হয়েছে। ল্যাব টেস্টের পরেই করোনা রোগীদের উপর কম ডোজে প্রয়োগ করে দেখা হয়েছে। ড্রাগ কন্ট্রোলের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে , রোগীর শারীরিক অবস্থা ও আনুসঙ্গিক অন্যান্য বিষয় খতিয়ে দেখে করোনা পরীক্ষায় টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ , আক্রান্ত এমন রোগীদের ক্ষেত্রে এই ওষুধ ব্যবহার হবে । হেটেরো গ্রুপ অফ কোম্পানির এমডি ভামসি কৃষ্ণ বান্ডি জানিয়েছেন , ” করোনার ওষুধ এখন কেবল হাসপাতালগুলির মাধ্যমে সরকারি ভাবেই পাওয়া যাবে। তবে সারা দেশ পাবে তা নিশ্চিত ” ।

জানা গেছে , ২০ হাজার ভায়াল তৈরি হচ্ছে কোভিফোরের। প্রতি ১০০ মিলিগ্রাম ভায়ালের দাম পড়বে ৫৪০০ টাকা। প্রতি ভায়াল সিপ্রেমির দাম ৫০০০ টাকা । সিপ্রেমি ও কোভিফোর দুই ওষুধের ডোজই হবে কম করে পাঁচদিনের। তাহলে পাঁচদিনের কোর্সে ট্রিটমেন্টের খরচ হবে আকাশছোঁয়া। দুই ওষুধের দামই মধ্যবিত্তের বাইরে। সিপলা জানিয়েছে , জন সাধারণের কথা মাথায় রেখে ওষুধের দামের ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা করা হতে পারে। হেটেরো ল্যাব এখনও এই বিষয়ে কিছু জানায়নি।

Follow Me:

Related Posts