রাজ্য

ঘরের মধ্যেই মিলল গৃহবধূর নিথর দেহ, আত্মহত্যা না খুন দানা বাঁধছে সন্দেহ!

Bangla 24×7 Newsdesk: বিয়ের বছর ঘুরতে না ঘুরতেই বন্ধ ঘরের মধ্যে মিলল বধূর নিথর দেহ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের মানিকচকে। খুনের অভিযোগ তুলেছে মৃতার পরিবার।

মৃত গৃহবধুর সাথে ভিনরাজ্যে কাজ করা ধরমপুর চাকির মঙ্গল সরকারের বিয়ে হয় বছর খানেক আগে। বিবাহের পর থেকেই রিংকু কে শাশুড়ি, জা’ রা নির্যাতন করত বলে জানা যায়। স্বামীর রোজগারের কোন টাকাই তার হাতে আসত না। স্বামীর মদতেই তার শাশুড়ি তার উপর শারীরিক নির্যাতন চালাত বলে আগেও সে জানিয়াছিল তার বাবা-মায়ের কাছে। রাখী পূর্ণিমাতে বাপের বাড়ি এসে সে নিজের খুন হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে। বাপের বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়িতে যাওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই ঘটল এমন দূর্ঘটনা। শ্বশুরবাড়ির লোকেরা এই দূর্ঘটনা কে আত্মহত্যা বলে চালাতে চাইলেও তা মানতে নারাজ মৃতার বাপের বাড়ির লোকজন। মৃতার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের দাবি, মানসিক অবসাদে ভুগছিল রিংকু, সকাল থেকে ঘরের দরজা না খোলায় তাদের সন্দেহ হয় ফলে তারা স্থানীয় পুলিশকে খবর দেয়। মানিকচক থানার পুলিশ এসেই মৃতদেহ উদ্ধার করে। মৃতার পরিবার তার শ্বশুর বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করে। তারপর থেকেই মৃতার শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক।

স্থানীয় মানিকচক থানার পুলিশ মৃতদেহটিকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিকেল কলেজে পাঠায় ময়না তদন্তের জন্য। খুন না আত্মহত্যা সে ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Follow Me:

Related Posts