মহানগর রাজ্য

রাজ্যে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ১ মাসের মধ্যেই পরীক্ষার হবে, জানিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী

Bangla 24×7 Desk : করোনার জেরে ১০ জুন পর্যন্ত রাজ্যের স্কুল , কলেজ সহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার তিনটি বাকি থাকায় তাও আপতত স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। এর মাঝেই শনিবার রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বৈঠক শেষে তিনি জানান পশ্চিমবঙ্গের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলি খোলার এক মাসের মধ্যেই ফাইনাল পরীক্ষাগুলি নেওয়া হবে। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশ মেনে সরকারের তরফে বলা হয় , ফাইনাল সেমেস্টার ছাড়া অন্যান্য বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের বিনা পরীক্ষাতেই নতুন পর্যায়ে উত্তীর্ণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গোটা রাজ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঝড়ের মতন বেড়ে চলেছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। শেষ পাওয়া খবর অনুসারে , পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৩০ জন। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ১ হাজার ৬৭৮ জন কোভিড ১৯ অর্থাৎ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যার মধ্যে ১ হাজার ১৯৫ জন রোগী এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এইরকম কঠিন সময়ে এদিন উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠক করবেন শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে পরীক্ষা কীভাবে নেওয়া যায় , মূলত তা নিয়েই আলোচনা হয়।

এদিন ভিডিও কনফারেন্সর মাধ্যমেই হয় বৈঠক। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন , শুধু ফাইনাল বর্ষের পরীক্ষা হবে। ইন্টারমিডিয়েট বা যাঁরা দ্বিতীয় কিংবা তৃতীয় সেমিস্টারের পরীক্ষা দেবেন, তাঁরা একটি করে সেমিস্টার এগিয়ে যাবেন। পরে তাঁদের পরীক্ষা হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনার সুরক্ষা বিধি মেনে সেই ফাইনাল বর্ষের পরীক্ষা কীভাবে নেওয়া যায় , সেটাই বড় চ্যালেঞ্জ সরকারের কাছে। পরীক্ষা না নেওয়া গেলে গড়ে নম্বর দেওয়ার সুপারিশ করেছে ইউজিসি। যদিও তাতে সায় নেই এখনকার উপাচার্যদের।

Follow Me:

Related Posts