মহানগর রাজ্য

বৈশাখীকে কড়া ভাষায় কটাক্ষ শিক্ষামন্ত্রীর,চোখের জলে বিকাশ ভবন ছাড়লেন বৈশাখী

Bangla24x7 Desk : অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষাই কটাক্ষ করার অভিযোগ তুলেন শিক্ষামন্ত্রীর বিরুদ্ধে। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী বুধবার কলেজের পরিচালন সমিতির বৈঠকে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে করোনা ভাইরাসের সঙ্গে তুলনা করে চূড়ান্ত অপমান করেন। তারপরই বৈশাখী কাঁদতে কাঁদতে বৈঠক ছেড়ে বেড়িয়ে যান ।

শিক্ষামন্ত্রী ডাকেন বিকাশ ভবনে বৈঠকে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং পরিচালন সমিতির সদস্যদের । এই বৈঠকের শুরুতেই পার্থবাবু বলেন, “করোনা ভাইরাস যেমন পশ্চিমবঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে, তেমনি মিল্লি আল আমিন কলেজের ভাইরাস হচ্ছেন বৈশাখী।” বিকাশ ভবনে উচ্চশিক্ষা দপ্তরের বৈঠকে ন্যূনতম সহবৎ মেনে হাজির থাকা সবাইকে চা দিলেও প্রথমে বৈশাখীকে তা দেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ । মিল্লি আল আমিন কলেজের শিক্ষকদের প্রাপ্ত সুবিধা কাটছাঁট করা হবে বৈশাখীকে জানানো হয় । বৈশাখীকে যে শিক্ষক লাগাতার অপমান করেন, শিক্ষা দপ্তরের তাঁকে উঁচু পদে বসানো হবে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি । কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষা এই পদক্ষেপের প্রতিবাদ করেন । তিনি শিক্ষামন্ত্রীকে জানিয়ে দেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)-র নিয়ম মেনে যা করার করতে হবে। শিক্ষামন্ত্রী বৈশাখীকে জানান, তাঁর সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। বিকাশ ভবনের সুত্রে জানা যায়, শিক্ষামন্ত্রীর এই কথায় অট্টহাস্যে ফেটে পড়েন পরিচালন সমিতির সদস্যরা। প্রসঙ্গত, এই সদস্যরাই বৈশাখী-সহ কলেজের কয়েকজনকে কার্যত ছাঁটাই করতে চান বলে অভিযোগ। বৈশাখীর অভিযোগ আগস্ট মাসে বৈশাখী দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই পরিচালন সমিতির সদস্যরা তাঁকে হেনস্থা করতে শুরু করে বলে । কিন্তু তারপরেও বৈশাখীর সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর যোগাযোগ ছিল। ওয়াকিবহাল মহলের মতে , শিক্ষামন্ত্রী কিছুদিন আগে নবান্নে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈশাখীর বৈঠক ভাল চোখে দেখেননি ।

নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী-বৈশাখী বৈঠকের পরই রত্না চট্টোপাধ্যায়কে বেহালা পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল পর্যবেক্ষকের পদে থেকে সরিয়ে সেই জায়গায় বসানো হয় কলকাতার প্রাক্তন মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ এক কাউন্সিলরকে।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে , সেই কারণেই কি এদিন শিক্ষামন্ত্রী ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন । এই ঘটনার পরে অপমানিত বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় চোখের জলে বিকাশ ভবন ছাড়েন। পার্থবাবু তখন উপস্থিত পরিচালন সমিতির সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, “এবার চলল নবান্নে আমার নামে অভিযোগ করতে।”

Follow Me:

Related Posts