দেশ

হাসপাতাল থেকে পালানোর পর ঝোপ থেকে উদ্ধার করোনা রোগীর দেহ

Bangla24x7 Desk :  ৫৭ বছর বয়সী এক করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজের হাসপাতালে । ভর্তি  হয়ে তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তিনি পালিয়ে যান হাসপাতাল থেকে। সেই দৃশ্যটি হাসপাতালের সিসিটিভি ক্যামেরার মধ্যে ধরা পড়ে । পরের দিন রবিবার সকালে করোনাতে আক্রান্ত রোগীটির মৃতদেহ পাওয়া যায় হাসপাতালের কাছের এক ঝোপ থেকে । মৃত ব্যাক্তিটির পরিবারের দাবি , হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীকে ঠিক মত দেখেনি অবহেলা করেছিলেন।তাই এই হেনস্থা সহ্য করতে না পেরে তিনি পালিয়ে গিয়েছিলেন । হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সম্পূর্ণ ভাবে এই অভিযোগ অস্বীকার করছেন ।

শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন ব্যাক্তিটি সেই শ্বাসকষ্টকে সঙ্গে নিয়ে তিনি প্রয়াগরাজের স্বরূপ রানি নেহরু হাসপাতালে ভর্তি হন । ব্যাক্তির বাড়ির লোক অডিওক্লিপের মাধ্যমে বলেন। ব্যাক্তিটি শনিবার সকালে তার বাড়িতে ফোন করে জানান , অভিযোগ করেন হাসপাতালের বিরুদ্ধে তার শারীরিক কষ্টের কথা তিনি বার বার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান কিন্তু কেউ তাকে গুরুত্ব দিচ্ছিলনা । ফোনে পরিবারের সাথে কথা হওয়ার প্রায় এক ঘণ্টা পরে তিনি হাসপাতাল থেকে পলায়িত হন ।

ওই ব্যক্তিটি কি বলেছিলেন অডিও ক্লিপে তা শোনা যাচ্ছে বললেন , “রাতে আমার মুখ শুকিয়ে গিয়েছিল। মনে হয় ভেন্টিলেটর খারাপ হয়ে গিয়েছে। আমার দম আটকে আসছিল । আমি হাসপাতালে কিছুজনকে আমার সমস্যার কথা বললাম, কিন্তু কেউ তা কেউ তোয়াক্কা করলোনা ।

হাসপাতালের  সিসিটিভি-র ফুটেজে দেখা গিয়েছে শনিবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ ব্যাক্তিটি করোনা ওয়ার্ডএর গেট থেকে বেরিয়ে গেছিলেন । তার কিছুক্ষণ প্রায় ৩০ সেকেন্ড পরে কয়েকজন সেই গেট থেকে ছুটতে ছুটতে বের হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি তারা সাফাইকর্মী ছিলেন রোগীকে ধরতে বেরিয়েছিলেন । রুগি আচমকায় গেট দিয়ে বেরিয়ে যেতে তারা পুলিশকে ঘটনাটি জানিয়েওছেন ।

মৃত ব্যাক্তিটির মেয়ের দাবী , হাসপাতালের অবহেলায় আবার বাবা মারা গিয়েছেন“আমার বাবা আর নেই। করোনা রোগীদের হেনস্থা করা হচ্ছে । আমার বাবা নিজে হেঁটে ওয়ার্ড থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন তাই এখানে কাউকে দোষী বলা হচ্ছেনা ।

Follow Me:

Related Posts