দেশ

জোড়া ধর্ষণে অভিযুক্তকে বাঁচাতে ঘুষ হিসাবে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি ! গ্রেপ্তার হওয়ার মুখে মহিলা পুলিশ অফিসার

Bangla 24×7 Desk : বাংলা ভাষায় একটা প্রবাদ প্রচলিত আছে । রক্ষকই ভক্ষক ! এবার সেই কথাটির বাস্তব রূপ দিলেন আহমদাবাদের এক মহিলা পুলিশ আধিকারিক। ধর্ষণে অভিযুক্তকে বাঁচাতে ঘুষ হিসাবে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি ! গ্রেপ্তার হওয়ার মুখে মহিলা পুলিশ অফিসার ।

জানা গেছে , গ্যাপ কর্প সায়েন্স নামে একটি বেসরকারি সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর কেনাল শাহের বিরুদ্ধে সম্প্রতি তাঁরই সংস্থার দুই মহিলা কর্মী থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সংস্থার সিকিউরিটি অফিসারকে হুমকি দিয়েছিলেন কেনাল শাহ ।

এই ঘটনার তদন্তের ভার পড়ে সাব ইনপ্সেক্টর তথা থানার ইনচার্জ শ্বেতা জাদেজার উপর । কিন্তু জোড়া ধর্ষণে অভিযুক্ত কেনাল শাহকে বাঁচাতে ৩৩ লক্ষ টাকা ঘুষ চান। শুধু তাই নয় , তার পাশাপাশি দাবি মতো টাকা না দিতে পারলে জোড়া ধর্ষণের অভিযোগে তাঁকে সত্ত্বর গ্রেপ্তারের হুমকিও দেন। শ্বেতার বিরুদ্ধে ক্রাইম ব্রাঞ্চে দাখিল করা এফআইআর ।

অভিযুক্ত কেনাল শাহের দাদা ভবেশ শাহকে তিনি থানায় ডেকে পাঠিয়ে ঘুষের প্রস্তাব দেন শ্বেতা জাদেজা । কেনাল শাহর দাদা সেই টাকা শ্বেতার নির্দেশ মত এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্টেও পাঠিয়ে দেন। এরপর আরেকটি মামলার প্রসঙ্গ তুলে টাকা চাওয়া হলে অভিযুক্তের দাদা উচ্চতর কর্তৃপক্ষের কাছে শ্বেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান।

তদন্তে নেমে ক্রাইম ব্রাঞ্চ মহিলা পুলিশ আধিকারিকের বিরুদ্ধে প্রমান জোগাড় করেন । ঊর্ধ্বতন মহলের নির্দেশের পরেই শ্বেতা জাদেজাকে গ্রেপ্তারের ব্যবস্থা করা হবে ।

 

Follow Me:

Related Posts