বিদেশ

চিনা প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফর ঘিরে চাপ বাড়ছে সেই দেশের প্রধানমন্ত্রীর শিনজো আবে’র উপর

Bangla 24×7 Desk : কয়েক দশক থেকে পূর্ব চিন সাগরে সেনকাকু দ্বীপসমূহ নিয়ে চিন ও জাপানের মধ্যে কলহের অন্ত নেই। তার উপর মাছ ধরা থেকে হংকং ও দক্ষিণ চিন সাগরে আধিপত্য নিয়েও দুই দেশের মধ্যে সংঘাত চলছে। এহেন পরিস্থিতিতে কূটনৈতিক পথে হেঁটে সমস্যা সমাধানের জন্য গত এপ্রিল মাসেই চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের জাপান আসার কথা ছিল। কিন্তু করোনা মহামারীর জন্য সেই সফর পিছিয়ে যায়।

চিন – জাপান বৈরিতা নতুন কিছু নয়। ১৯৩৭ সালের নানজিং গণহত্যা থেকে শুরু করে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পর্যন্ত জাপ বাহিনীর হাতে হেনস্তার কথা ভোলেনি চিনারা। তবে বিগত কয়েক দশকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে সমীকরণ আমূল পালটেছে।

২০২০ সালেও দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক উষ্ণ হয়ে ওঠেনি। এবার পারদ আরও চড়িয়ে, চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের টোকিও সফরে প্রবল আপত্তি জানিয়েছে জাপানের শাসকদল । ক্ষমতায় এসে চিনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার উপর জোর দিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তবে তাঁর চেষ্টায় বিশেষ ফল মেলেনি।

জাপানের শাসকদলের নেতা ইয়াসুহিদে নাকাইয়ামা জানান , ” আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিনের প্রেসিডেন্টের সফর বাতিল করার আবেদন জানাচ্ছি “। জাপান জানিয়েছিল, ওই মাসের মধ্যেই চারটি সেনাঘাঁটিতে পিএসি থ্রি এমএসই মিসাইল বসানো হবে। যেগুলি ১০০ কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্বে আঘাত হানতে সক্ষম। গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে টোকিওর সঙ্গে বেজিংয়ের চরম বিবাদ শুরু হয়েছে। জাপানের নাকের ডগায় মিসাইল সাবমেরিন পাঠিয়েছে চিন। তারই জবাবে জাপানের এই মিসাইল সক্রিয়তা বলে খবর।

Follow Me:

Related Posts