দেশ

বাড়ির আলো বন্ধ থাকলেও রাস্তা – হাসপাতাল ,থানার আলো জ্বলবে , চলবে এসি , টিভি জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ মন্ত্রক

Bangla 24×7 Desk : বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাস তার তাণ্ডব লীলায় মেতেছে l প্রত্যেক দিনই মারা যাচ্ছেন অসংখ্য মানুষ l সেই সাথে পাল্লা দিয়ে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে l আমাদের দেশও তার ব্যতিক্রম নয় l আমাদের দেশেও আক্রান্ত ও মৃত্যু সমান ভাবে চলছে l তিনি বলেন , করোনা মোকাবিলায় আমাদের জোটবদ্ধ মানসিকতার পরিচয় দিন l তাই নরেন্দ্র মোদী আগামী ৫ ই এপ্রিল রাত্রি ন’টায় ৯ মিনিটের জন্য আপনি আপনার বাড়ির সব আলো নিভিয়ে রাখার পাশাপাশি তার পরিবর্তে গৃহের দরজার সামনে , বাড়ির বারান্দায় মোমবাতি , টর্চ , মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালানোর কথা বলেছেন ।

সূত্রের খবর , নরেন্দ্র মোদির এই ঘোষণায় আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পাওয়ার গ্রিড গুলির কর্তারা। তাঁদের আশঙ্কা, হঠাৎ দেশজুড়ে সবাই বাড়ির আলো নেভালে এবং ৯ মিনিট বাদে সবাই একসাথে আলো জ্বালালে আচমকা জোরালো ধাক্কা খেতে পারে পাওয়ার গ্রিড। চাহিদার ঘটনায় ঘটতে পারে বড়সড় বিপর্যয়। যার ফলে ব্ল্যাক আউট হতে পারে গোটা দেশে । ভারতে গ্রিড গুলির ক্ষমতা ৩৭০ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ ধরে রাখার, সাধারণত বিদ্যুতের চাহিদা থাকে ১৫০ গিগাওয়াট। 

এর পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ মন্ত্রক নোটিস জারি করেছে। এর ফলে দেশের গ্রিড ব্যবস্থার উপর প্রভাব পড়তে পারে । তার জন্যই একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বিদ্যুৎ মন্ত্রকের তরফে। বলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী আগামী ৫ ই এপ্রিল রাত্রি ন’টায় ৯ মিনিটের জন্য আপনি আপনার বাড়ির সব আলো নিভিয়ে রাখার পাশাপাশি তার পরিবর্তে গৃহের দরজার সামনে , বাড়ির বারান্দায় মোমবাতি , টর্চ , মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালানোর কথা বলেছেন । কিন্তু শুধুমাত্র আলো নিভিয়ে রেখে টিভি , এসি সবই চলবে । এর সাথে হাসপাতাল, জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন দফতর, থানা গুলিও আলোকিত থাকবে । এতে পাওয়ার গ্রিডের উপর চাপ কম পড়বে । যার ফলে ব্ল্যাক আউটের সম্ভাবনা কম থাকবে ।

Follow Me:

Related Posts